মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:১৫ অপরাহ্ন

চার সহোদরকে কুপিয়েছে সন্ত্রাসীরা!

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২২
  • ৯০ বার পঠিত

বাকবিতন্ডতা জের,,,,, 

হেলাল উদ্দিন, টেকনাফ :

কক্সবাজারের টেকনাফে বাকবিতন্ডতা জের ধরে চার সহোদরকে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করেছে সন্ত্রাসীরা।তাদের অবস্থা আশঙ্কজনক।বর্তমানে আহতরা চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

আহত চারজন হলেন-টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেশখালীয়াপাড়ার বাসিন্দা বাদশা মিয়ার ছেলে প্রতিবন্ধী(বোবা ও বধির)মঞ্জুর আলম(৩৩),হাছন আহমদ (৪৭), হাফেজ আহমদ (৪৫) ও শাকের আহমেদ (৪০)।
শনিবার রাত আটটার দিকে উপজেলার টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেশখালীয়া পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে ।

আহতদের পরিবার সূত্র জানায়, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের মহেশখালীয়াপাড়া এলাকার আব্দুল আজিজ দীর্ঘদিন আগে প্রতিবন্ধী(বোবা ও বধির)মঞ্জুর আলমকে টাকার বিনিময়ে একটি প্রতিবন্ধী কার্ড পাইয়ে দেওয়ার আশস্ত করে টাকা আদায় করেন। কিন্তু এখনো আজিজ কার্ড দিতে না পারায় প্রতিবন্ধী মঞ্জুরের সঙ্গে বাকবিতন্ডতা হয়।এক পর্যায়ে প্রতিবন্ধী মঞ্জুর আলমকে মারধর করে গুরুতর আহত করে।এ ঘটনার খবর পেয়ে প্রতিবন্ধী মঞ্জুরের পরিবারের লোকজন স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবহিত করতে যাবার প্রস্তুতিকালে একই এলাকার হাছান আহমদ (৪৫), মো রওশন (৪০), ছৈয়দুর রহমান (৩৮), মো আদেল (৩৫), আব্দুল আজিজ (৩৩) ও তার জামাতা টিংকুর নেতৃত্বে ৮/১০জন ধারালো দেশিয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রতিবন্ধী মঞ্জুর আলমের ভাইদের উপর হামলা চালায়।

এতে হাছন আহমদ (৪৭), হাফেজ আহমদ (৪৫), শাকের আহমেদ (৪০)কে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে।পরে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এলে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের রেখে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে মুমূর্ষ অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে প্রথমে টেকনাফ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে আহতদের অবস্থা আশঙ্কজনক হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে পাঠান। আহতদের অবস্থার অবনতি হওয়ায় জেলা সদর হাসপাতাল থেকে তাদের চট্রগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।বর্তমানে তারা সেখানে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সর জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আল আমিন বলেন,রাতে চারজন সহোদরকে হাসপাতালে আনা হয়।তাদের কারো মাথায় কুপ, কারো হাতে আবার কারো পেটে ও পায়ে ছুরিকাঘাত রয়েছে। তাদের অবস্থা আশঙ্কজন হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য কক্সবাজার পাঠানো হযেছে।
আহতদের পরিবারের স্বজনরা জানান,বেশ কিছুদিন আগে প্রতিবন্ধী মঞ্জুরের কাছ থেকে একই এলাকার আব্দুল আজিজ টাকা নিয়ে প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ড বানিয়ে দিবেন বলে মোটা অংকের টাকা নেন।কিন্তু প্রতিবন্ধী মঞ্জুরকে বিভিন্ন সময় কার্ডের ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে কালক্ষেপন করে আসছিলেন।তারই সূত্র ধরে দুইজনের মধ্যে বাকবিতন্ডতা সৃষ্টি হয়।এরপর আজিজ সন্ত্রাসীদের নিয়ে হামলা চালিয়ে চার সহোদরকে মারাত্মক আহত করেন।

টেকনাফ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হাফিজুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় আহত পরিবারের পক্ষ থেকে একটি অভিযোগ পেয়েছি। অভিযুক্তদের আটক করার জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs
error: Content is protected !!