মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ০১:১৬ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মুক্তি” কক্সবাজার কর্তৃক টেকনাফে আন্তর্জাতিক ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত টেকনাফের নয়াবাজারে ছুরিকাঘাতে শাহ আলম গুরুতর আহত! শারীরিক নির্যাতন ও মিথ্যা মামলায় হয়রানির প্রতিবাদে চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন ভাটারা থানা ছাত্রলীগের সভাপতি পলাশ, সাধারণ সম্পাদক উল্লাস নাফ মেরিট মাল্টিমিডিয়া স্কুলে ক্লাস পার্টি রোহিঙ্গা সেলিম হত্যা মামলায় হ্নীলার বাবুল মেম্বার গ্রেপ্তার টেকনাফে‘নগদকর্মী’কে হত্যার অভিযোগে ৮ জনের বিরুদ্ধে মামলা টেকনাফে এক ব্যক্তির লাশ উদ্ধার টেকনাফ হ্নীলার মহিলা মাদ্রাসার বিরুদ্ধে মিথ্যা অপপ্রচারের প্রতিবাদ টেকনাফে কুঁড়ে ঘরে বসবাস করলেও,বিধবার কপালে জুটেনি প্রধানমন্ত্রীর উপহার “ঘর’ |বাংলাদেশ দিগন্ত

জয় পরিমণিদের জয়! বাংলাদেশ দিগন্ত

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ১ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৪০৪ বার পঠিত

বাংলাদেশ কিন্তু ইসলামী শরীয়া আইনে পরিচালিত হয়না।তাই এদেশের সংবিধান যেমন প্রতিটি মানুষের ধর্মিয় স্বাধীনতা কে স্বীকার করে তেমনি মদের লাইসেন্স ও অনুমোদন দেয়।
আপনাকেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে মসজিদে গিয়ে ইবাদত করবেন নাকি বারে গিয়ে মদ গিলবেন।
ইচ্ছার স্বাধীনতা শুধুমাত্র মানব আর জ্বীনকেই দেয়া হয়েছে।

মানব আর জ্বীন জাতিকে যদিও মহান শ্রষ্টা ইচ্ছার স্বাধীনতা দিয়েছেন কিন্তু তাদের কে সৃষ্টির উদ্দেশ্য ধ্যার্থহীন ভাবে বলে দিয়েছেন-“আমি জ্বীন আর মানব কে সৃষ্টি করিয়াছি আমার ইবাদত করার জন্য”।বর্তমানে অনেকে মুসলিম ঘরে জম্ম হয়ে মুসলিম সমাজে বেড়ে উঠার পরও আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত অনেক ব্যক্তিবর্গ অনান্য ধর্মে ডাইভার্ট হয়ে যাচ্ছেন!

বর্তমানে আধুনিকতার নামে উলঙ্গপনাকে নিত্য নতুন ভাবেই প্রচারের আকর্ষনীয় ভংগিমায় অর্ধউলংগ পরিমনিদের কে নিঃস্বার্থ ভাবে মজা নিবারণের জন্য প্রচার করে নিজেদের অজান্তেই কিন্ত হাজারো সোনামনিদের উৎসাহী করে তুলিতেছে!

সময়ের পরিক্রমায় গত কিছুকাল আগে ও তসলিমা নাসরিন ধর্ম কে অবমাননা করার দায়ভার মাথায় নিয়ে দেশান্তর হতে বাধ্য হয়েছিলো! কিন্তু আজ যেন ইচ্ছার স্বাধিনতার সাথে মতপ্রকাশের অধিকার প্রতিষ্ঠা করার নামে আধুনিক চিন্তা-চেতনা ও পরিমনিদের অর্ধনগ্নতা হাজারো ধর্মদ্রুোহী- লক্ষ তাসলিমাদের নগ্ন সংস্কৃতির আগ্রসনের অভয়ারণ্য পরিণত হয়েছে। তাই বলা চলে আজতো পরিমনিদের জন্য বড্ডো সূদুর প্রসারি বিলাসী স্বপ্নের কাঙ্খিত সফলতা!

যে সফলতার জন্য অনেকদিন অপেক্ষা করতে হয়েছে হিন্দু-খৃষ্টান ও ইহুদী বলয় কে!যে সফল প্রজেক্টের নাম ছিলো -চলে বলে কৌশলে-যেভাবেই হোক মুসলিম নারিদের পর্দাহীন করো!

খসাতে হবেই নারীদের পর্দা!ধীরে ধীরে করে দাও লজ্জাহীন!এমন ভাবেই মেলামেশাতে অব্যস্ত করে দাও যেন অর্ধনগ্ন হতে হতে এমনিতেই নগ্ন হয়ে যায়!আর যদি প্রজেক্ট সফল হয়ে যায়-কখনও মুসলিম মহিলাদের গর্ভে জম্ম নিবেনা হযরত শাহজালাল,হযরত শাহপরান,তীতু মির,হাজী শরিয়ত উল্লাহদের মতো যুগের কান্ডারিরা। আজকের মুসলিম বাংলাদেশের ইতিহাস পরিমনিদেরই সফলতার ইতিহাস। লজ্জাবতী গাছের ঠিকই আগের মতো আছে লজ্জা !শুধুমাত্র মুসলিম নারিদের লজ্জা গ্রামীন ব্যাংকের একাউন্টে বন্ধক!!

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs
error: Content is protected !!