শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:৪১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
টানটান উত্তেজনায় শেষ হল শেখ রাসেল গোল্ডকাপ;বিজয়ীদের পুরষ্কার তুলে দেন অতিথিগণ টেকনাফে মুক্তি কক্সবাজার কর্তৃক বাস্তবায়িত প্রকল্পের উপকারভোগীদের মধ্যে প্রশিক্ষণ পরবর্তী নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ টেকনাফে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন অভাবনীয় সফলতায় মেম্বার এনামের প্রতিষ্ঠিত বালিকা মাদ্রাসা টেকনাফে “অক্সফাম” কর্তৃক ভাউচার প্রোগ্রামের মাধ্যমে বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ “মুক্তি” কক্সবাজার কর্তৃক উপকারভোগীদের মাঝে কৃষি উপকরণ ও নগদ টাকা বিতরণ “বাংলাদেশ সমতা ঐক্য পরিষদ’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী শাখার তৃতীয় মেয়াদে কমিটি গঠিত “মানবাধিকার দিবস” উপলক্ষে টেকনাফে কোস্ট ফাউন্ডেশনের সেমিনার রামুতে সূর্যের হাসি যুব সংঘ ও প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে এসএসসিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা মুক্তি” কক্সবাজার কর্তৃক টেকনাফে আন্তর্জাতিক ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত

টেকনাফের হোয়াইক্যংয়ে ফ্রান্স বিরুধী প্রতিবাদ মিছিলে নবী প্রেমিকদের ঢল |বাংলাদেশ দিগন্ত

মুহাম্মদ শেখ রাসেল, টেকনাফ:
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৫৯ বার পঠিত

ফ্রান্সে ইসলাম এবং নবীর কার্টুন নিয়ে প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোর সাম্প্রতিক বক্তব্যের প্রতিবাদে কক্সবাজারের সীমান্ত উপজেলা টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়ন ওলামা পরিষদের উদ্যোগে প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।এতে নবী প্রেমিকরা মুখে আল্লাহু আকবারের শ্লোগান নিয়ে মিছিলে মিছিলে যোগদান করেছেন।২ই নভেম্বর (সোমবার)হোয়াইক্যং ষ্টেশন চত্বরে এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে অংশগ্রহণ করেন,উনছিপ্রাং বড় মাদরাসার শিক্ষক ও ছাত্র সমাজ,ইসলামী আন্দোলনের বিভিন্ন অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।বিশেষ ভাবে উপস্থিত ছিলেন, ইসলামী আন্দোলনের নেতা মাও:তৈয়ব,সাংবাদিক মুহাম্মদ তাহের নঈম, উনছিপ্রাং বড় মাদরাসার পরিচালক মাওঃশামসুল আলম,মাওঃইউনুছ আরমান,মুফতি ওমর ফারুক,কারিমিয়া মাদরাসার পরিচালক মাওঃইউনুছ সাইফী,আলমগীর চৌধুরী প্রমুখ।
বাংলাদেশ সরকার ও মুসলিম বিশ্বকে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে আরও সোচ্চার হওয়ার আহবান জানানো হয়।
মিছিলকারীদের কারও হাতে প্ল্যাকার্ড কারও হাতে ব্যানার, আবার কারও মাথায় ছিলো শ্লোগান সম্বলিত কাপড়।উক্ত সমাবেশে বক্তারা আরো বলেছেন,ফ্রান্সে বিশ্ব নবীকে অবমাননা করে সারাবিশ্বের মুসলমানদের অন্তরে আঘাত করেছে,যা কখনো সহ্য করার মতো নয়। যারা নবীর অপমান করেছে তাদের অবশ্যই পুরো বিশ্বের মুসলমানদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।প্রয়োজনে আমরা শহীদ হবো, শেষ রক্তবিন্দু দিয়ে হলেও নবীর সম্মান রক্ষা করে যাবো এবং ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের আহবান করেন।বাংলাদেশ থেকে তাদের দূতাবাস সরাতে হবে, না হয় আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে বক্তারা কঠিন হুশিয়ারী প্রদান করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs
error: Content is protected !!