শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৬:১০ অপরাহ্ন

টেকনাফে পাঁচ ইউনিয়নের ইউপি নির্বাচনের মনোনয়ন পত্র বাছাই শেষ |বাংলাদেশ দিগন্ত

এম এ হাসান,টেকনাফ:
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ১৯ মার্চ, ২০২১
  • ২১০ বার পঠিত

বহু জল্পনা কল্পনা শেষে টেকনাফ উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি নির্বাচনে মনোনয়ন পত্র যাচাই-বাছাই শেষ হয়েছে।

টেকনাফ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোঃবেদারুল ইসলাম ১৯মার্চ সন্ধ্যায় তার কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে জানান,চেয়ারম্যান পদে ৩৪ সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৮৩জন ও পুরুষ সদস্য পদে ৪০৬জন, সর্বমোট ৫০১জন মনোনয়ন পত্র নিয়েছিলেন।এর মধ্যে যাচাই বাছাই শেষে চেয়ারম্যান পদে ২৯জন,সংরক্ষিত মহিলা আসনে ৮৩জন পুরুষ সদস্য পদে ৪০৩জনের মনোনয়ন পত্র বৈধ হয়েছে।যে সমস্ত ইউনিয়ন পরিষদে মনোনয়ন পত্র ত্রুুটি ও বিচ্যুতির কারণে বাতিল হয়েছে এরা হচ্ছে হোয়াইক্যং ইউনিয়ন পরিষদে মোঃফরিদুল আলম, নুরুল হোসাইন সিদ্দিকী ২জন চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী ও ৭নং ওয়ার্ডের জাহিদ হোসেন নামের ১জন মেম্বার পদ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে।হ্নীলা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মোঃ ইলিয়াস নামের ১জন মেম্বার প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে।সদর ইউনিয়নের মোঃ আব্দুল ওয়াজেদ, আব্দুর রহমান ও জিয়াউর রহমান নামের ৩জন চেয়ারম্যান পদ প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে। সাবরাং ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মোঃ হাসেম নামের ১জন মেম্বার প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়েছে। নির্বাচন কর্মকর্তা জানান, ২০মার্চ হতে ২৩মার্চ পর্যন্ত বাতিলকৃত পদ প্রার্থীরা আপিল করতে পারবেন।আপিল বোর্ড়ে
বাতিলকৃত মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই শেষে বৈধ ঘোষনা করলে ঐ প্রার্থীগন নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারবেন বলে জানান।
আগামী ২৪মার্চ মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন। ২৫মার্চ নির্বাচনী প্রতিক বরাদ্ধ প্রদান করা হবে। আগামী ১১এপ্রিল টেকনাফ উপজেলার ৫টি ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইউনিয়নগুলো হচ্ছে..হোয়াইক্যং , হ্নীলা, সদর,সাবরাং ও সেন্টমার্টিন। প্রতিক বরাদ্ধ না হওয়ার আগেই কোন নির্বাচনী প্রার্থী ভোটের প্রচারনা চালানো নির্বাচন আচার বিধি অনুযায়ী নিষেধ থাকলেও টেকনাফ উপজেলায় তা মানা হচ্ছে না বলে স্থানীয় লোকজন জানান।অনেক প্রার্থী গাড়ীর বহর, ঢোল-তবলা ও মাইক নিয়ে প্রচারনা চালাচ্ছে বলে জানা যায়।এছাড়া ১জন মেম্বার প্রার্থী নির্বাচনী ব্যয় ১লাখ টাকা ও চেয়ারম্যান প্রার্থী ৫লাখ টাকা ব্যয় করার কথা থাকলেও ইদানিং মনোনয়ন পত্র জমা ও বাছায় পর্বে গাড়ী নিয়ে লোকজন আনা লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করছেন।এই আচরণ বিধি শুরুতেই লঙ্ঘিত হলে নির্বাচন চলাকালীন সময়ে অনেক প্রার্থী কাড়ী কাড়ী টাকা ব্যয় করে নিজের পক্ষে ভোটের জয় লাভ করার জন্য আপ্রান চেষ্টা করবেন। এ ব্যাপারে উপজেলা রিটার্নিংকর্মকর্তাদেরকে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য স্থানীয় ভোটারগন আহবান জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs