শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১২:১১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
টানটান উত্তেজনায় শেষ হল শেখ রাসেল গোল্ডকাপ;বিজয়ীদের পুরষ্কার তুলে দেন অতিথিগণ টেকনাফে মুক্তি কক্সবাজার কর্তৃক বাস্তবায়িত প্রকল্পের উপকারভোগীদের মধ্যে প্রশিক্ষণ পরবর্তী নগদ অর্থ সহায়তা বিতরণ টেকনাফে ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন অভাবনীয় সফলতায় মেম্বার এনামের প্রতিষ্ঠিত বালিকা মাদ্রাসা টেকনাফে “অক্সফাম” কর্তৃক ভাউচার প্রোগ্রামের মাধ্যমে বিভিন্ন সামগ্রী বিতরণ “মুক্তি” কক্সবাজার কর্তৃক উপকারভোগীদের মাঝে কৃষি উপকরণ ও নগদ টাকা বিতরণ “বাংলাদেশ সমতা ঐক্য পরিষদ’র কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী শাখার তৃতীয় মেয়াদে কমিটি গঠিত “মানবাধিকার দিবস” উপলক্ষে টেকনাফে কোস্ট ফাউন্ডেশনের সেমিনার রামুতে সূর্যের হাসি যুব সংঘ ও প্রবাসী ফোরামের উদ্যোগে এসএসসিতে জিপিএ-৫ প্রাপ্তদের সংবর্ধনা মুক্তি” কক্সবাজার কর্তৃক টেকনাফে আন্তর্জাতিক ও জাতীয় প্রতিবন্ধী দিবস পালিত

টেকনাফ লেদা ছ্যুরিখালের কেওড়া জঙ্গলে মিলল সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা – বাংলাদেশ দিগন্ত

মোঃ আরাফাত সানী, টেকনাফ
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২০
  • ৪৬৩ বার পঠিত

মোঃ আরাফাত সানী::কক্সবাজরের টেকনাফে হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা ছ্যুরিখাল সীমান্ত এলাকা দিয়ে প্রবেশের সময় নৌকা থেকে সাড়ে ৩ লাখ ইয়াবা উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি।

টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২বিজিবি) অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মোঃ ফয়সল হাসান খান বলেন, মঙ্গলবার রাতে টেকনাফ ব্যাটালিয়ন ২বিজিবির আওতাধীন লেদা বিওপি’র দায়িত্বপূর্ণ লেদা ছ্যুরিখাল এলাকা দিয়ে মিয়ানমার হতে ইয়াবার একটি বড় চালান বাংলাদেশে পাচার হতে পারে। এমন সংবাদের লেদা বিওপি’র একটি বিশেষ টহলদল দ্রুত বর্ণিত এলাকায় গমন করে গোপনে অবস্থান গ্রহণ করে। রাত সাড়ে ৮ ঘটিকার সময় উক্ত টহলদল কয়েকজন ব্যক্তিকে নাফ নদীতে জোয়ার থাকা অবস্থায় একটি নৌকাযোগে লেদা ছ্যুরিখাল সংলগ্ন কেওড়া জঙ্গলে প্রবেশ করতে দেখে চ্যালেঞ্জ করে। উক্ত ব্যক্তিরা দূর হতে টহলদলের উপস্থিতি লক্ষ্য করে কেওড়া জঙ্গলের আড় ব্যবহার করে অন্ধকারের সুযোগ নিয়ে নৌকাটি বিপরীত দিকে ঘুরিয়ে শুন্য রেখা অতিক্রম করে মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলে যায়। পরবর্তীতে টহলদল বর্ণিত স্থানে পৌঁছে কেওড়া জঙ্গল তল্লাশী করে ইয়াবা পাচারকারীদের ফেলে যাওয়া ৪টি প্লাষ্টিকের বস্তা উদ্ধার করে। বস্তা গুলো খুলে গণনা করে ৩ লাখ ৫০ হাজার ইয়াবা পাওয়া যায়। যার আনুমানিক মূল্য ১০ কোটি ৫০ লক্ষ টাকা। ইয়াবা পাচারকারীদের আটকের জন্য পার্শ্ববর্তী স্থানে পরবর্তী ২ ঘন্টা যাবৎ অভিযান পরিচালনা করা হলেও কোন পাচারকারীকে আটক করা সম্ভব হয়নি। উক্ত স্থানে অন্য কোন অসামরিক ব্যক্তিকে পাওয়া যায়নি। তবে তাদের সনাক্ত করার জন্য অত্র ব্যাটালিয়নের গোয়েন্দা কার্যক্রম চলমান রয়েছে।

তিনি বলেন, উদ্ধারকৃত মালিকবিহীন ইয়াবাগুলো বর্তমানে ব্যাটালিয়ন সদরের ষ্টোরে জমা রাখা হবে এবং প্রয়োজনীয় আইনী কার্যক্রম গ্রহণ পরবর্তীতে তা উর্দ্ধতন কর্মকর্তা, মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের প্রতিনিধি, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও মিডিয়া কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Developed By Bangla Webs
error: Content is protected !!