ঢাকা ০৫:০৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ১০ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনগরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১১:৩৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ৯৮ বার পড়া হয়েছে

হেলাল উদ্দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর প্রতিনিধি।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া ঐতিহ্যবাহী জেলা নবীনগরে অত্যাধুনিক ৫০ শয্যা বিশিষ্ট আধুনিক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মিত হয়েছে, সেই সাথে সেবার মানও বৃদ্ধি হয়েছে। শনিবার ২৩ শে সেপ্টেম্বর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫ নবীনগরের জাতীয় সংসদ সদস্য ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুলের সভাপতিত্বে ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ হাবিবুর রহমানের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সাদেক, জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ নাসির উদ্দিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা জাহান, নবীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুব আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সুজিত কুমার দেব, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ভিপি মোশারফ হোসেন সরকার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম নজু, সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক প্রণয় কুমার ভদ্র পিন্টু, সাবেক কার্যকরী সদস্য সাইফুর রহমান সোহেল, প্রেস ক্লাব সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ চক্রবর্তী সহ ব্যবস্থাপনা কমিটির অন্যান্য সদস্যগণ হাসপাতালের নার্স ও ডাক্তারগণ উপস্থিত ছিলেন। সবাই বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সিদ্ধান্ত গৃহীত শেষে সভাপতির বক্তব্যে স্থানীয় সংসদ সদস্য বলেন আমি নির্বাচিত হওয়ার পর দেখেছি নবীনগরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রতি মানুষের আস্থা কম ছিল। মানুষ চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হত, যেহেতু নবীনগর উপজেলা একটি বিশাল উপজেলা সেই উপজেলার মানুষকে শতভাগ চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার জন্য প্রথমে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরাতন ভবন ভেঙ্গে নতুন ভবন করেছি, যাহাতে সকল বিভাগের ডাক্তার এবং নার্সরা আলাদা আলাদা রুমে বসতে পারে, রোগীরাও যাতে তাদের প্রাপ্য সেবা গ্রহণ করতে পারে, এর জন্য আমি আমার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। চিকিৎসা সেবার বিষয়ে আমি সব সময় সচেতন আছি এবং ভবিষ্যতে থাকবো ইনশাল্লাহ। সংসদ সদস্য বলেন আমি নবীনগর বাসির স্বাস্থ্যসেবার বিষয়ে শুরু থেকে সচেতন আছি যাহাতে নবীনগরবাসী স্বাস্থ্য সেবার জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের অভাবে জেলা শহর এবং ঢাকা শহরে দৌড়োদৌড়ি করতে না হয়। তার জন্য আমি আমার সকল প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। স্বাস্থ্যসেবায় নবীনগর উপজেলাকে মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কাজ করছি। এর জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তারগনও যাহাতে তাহাদের সাধ্য অনুযায়ী শতভাগ চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন সেই খোঁজখবরও প্রতিনিয়ত রাখছি। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আধুনিকায়ন করার জন্য ৯ কোটি ৯৮ লক্ষ টাকা ব্যায়ে বহুতল ভবন নির্মাণ এবং উন্নত যন্ত্রপাতি বরাদ্দের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবার সকল বিভাগ যাহাতে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে পারে সেই জন্য সবকিছু করেছি। এ বিষয়ে তিনি উপজেলাবাসীর সকলের সহযোগিতা কামনা করছেন। সকল ডাক্তার এবং নার্সদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন আপনারা যদি আমার চাহিদা অনুযায়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা রাখার পাশাপাশি মানসম্মত উন্নত চিকিৎসা প্রদান করতে পারেন তাহলে আমি আমার ব্যক্তিগত তরফ থেকে আপনাদেরকে পুরস্কৃত কর

Facebook Comments Box

নবীনগরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এর ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত

আপডেট সময় : ১১:৩৮:৫৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩

হেলাল উদ্দিন ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর প্রতিনিধি।
ব্রাহ্মণবাড়িয়া ঐতিহ্যবাহী জেলা নবীনগরে অত্যাধুনিক ৫০ শয্যা বিশিষ্ট আধুনিক স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নির্মিত হয়েছে, সেই সাথে সেবার মানও বৃদ্ধি হয়েছে। শনিবার ২৩ শে সেপ্টেম্বর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ব্যবস্থাপনা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্রাহ্মণবাড়িয়া ৫ নবীনগরের জাতীয় সংসদ সদস্য ও ব্যবস্থাপনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ এবাদুল করিম বুলবুলের সভাপতিত্বে ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার মোঃ হাবিবুর রহমানের পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ মনিরুজ্জামান মনির, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান জাকির হোসেন সাদেক, জেলা পরিষদের সদস্য মোঃ নাসির উদ্দিন, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মাহমুদা জাহান, নবীনগর থানার অফিসার ইনচার্জ মাহবুব আলম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট সুজিত কুমার দেব, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক ভিপি মোশারফ হোসেন সরকার, সাবেক মুক্তিযোদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম নজু, সাবেক উপজেলা আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার সম্পাদক প্রণয় কুমার ভদ্র পিন্টু, সাবেক কার্যকরী সদস্য সাইফুর রহমান সোহেল, প্রেস ক্লাব সভাপতি শ্যামাপ্রসাদ চক্রবর্তী সহ ব্যবস্থাপনা কমিটির অন্যান্য সদস্যগণ হাসপাতালের নার্স ও ডাক্তারগণ উপস্থিত ছিলেন। সবাই বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সিদ্ধান্ত গৃহীত শেষে সভাপতির বক্তব্যে স্থানীয় সংসদ সদস্য বলেন আমি নির্বাচিত হওয়ার পর দেখেছি নবীনগরের স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রতি মানুষের আস্থা কম ছিল। মানুষ চিকিৎসা সেবা থেকে বঞ্চিত হত, যেহেতু নবীনগর উপজেলা একটি বিশাল উপজেলা সেই উপজেলার মানুষকে শতভাগ চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করার জন্য প্রথমে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পুরাতন ভবন ভেঙ্গে নতুন ভবন করেছি, যাহাতে সকল বিভাগের ডাক্তার এবং নার্সরা আলাদা আলাদা রুমে বসতে পারে, রোগীরাও যাতে তাদের প্রাপ্য সেবা গ্রহণ করতে পারে, এর জন্য আমি আমার চেষ্টা অব্যাহত রেখেছি। চিকিৎসা সেবার বিষয়ে আমি সব সময় সচেতন আছি এবং ভবিষ্যতে থাকবো ইনশাল্লাহ। সংসদ সদস্য বলেন আমি নবীনগর বাসির স্বাস্থ্যসেবার বিষয়ে শুরু থেকে সচেতন আছি যাহাতে নবীনগরবাসী স্বাস্থ্য সেবার জন্য বিশেষজ্ঞ ডাক্তারের অভাবে জেলা শহর এবং ঢাকা শহরে দৌড়োদৌড়ি করতে না হয়। তার জন্য আমি আমার সকল প্রচেষ্টা অব্যাহত আছে। স্বাস্থ্যসেবায় নবীনগর উপজেলাকে মডেল উপজেলা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য কাজ করছি। এর জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ডাক্তারগনও যাহাতে তাহাদের সাধ্য অনুযায়ী শতভাগ চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন সেই খোঁজখবরও প্রতিনিয়ত রাখছি। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আধুনিকায়ন করার জন্য ৯ কোটি ৯৮ লক্ষ টাকা ব্যায়ে বহুতল ভবন নির্মাণ এবং উন্নত যন্ত্রপাতি বরাদ্দের পাশাপাশি স্বাস্থ্যসেবার সকল বিভাগ যাহাতে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করতে পারে সেই জন্য সবকিছু করেছি। এ বিষয়ে তিনি উপজেলাবাসীর সকলের সহযোগিতা কামনা করছেন। সকল ডাক্তার এবং নার্সদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন আপনারা যদি আমার চাহিদা অনুযায়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটিকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা রাখার পাশাপাশি মানসম্মত উন্নত চিকিৎসা প্রদান করতে পারেন তাহলে আমি আমার ব্যক্তিগত তরফ থেকে আপনাদেরকে পুরস্কৃত কর

Facebook Comments Box