ঢাকা ০১:২৯ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনগরে খারঘর গণহত্যা দিবস অনুষ্ঠিত।

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:৩৪:৩০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩ ১২২ বার পড়া হয়েছে

 

হেলাল উদ্দিন নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর বড়াইল ইউনিয়নের পাগলা নদী তীরবর্তী খারঘর গ্রামে পাক বাহিনীর বর্বর হামলায় ৪৩ জন নারী-পুরুষ নিহত হয় । প্রতি বছর ১০ অক্টোবর স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার,ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা গণকবরে ফুল দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন শেষে খারঘর গণকবর সংরক্ষণ ও বাস্তবায়ন কমিটির আয়োজনে মঙ্গলবার আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বড়াইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে ও খারঘর সংরক্ষণ ও বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ জীবনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নবীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানবীর ফরহাদ শামীম। আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার ভূমি নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট মাহমুদা জাহান,সজল কান্তি দাস, মনজুর হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুল আলম, বীর- মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, মোস্তাফিজুর রহমান নান্নু মাস্টার, শরিফুল আলমসহ বীরমুক্তিযোদ্ধারা। নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানাতে স্থানীয় গ্রামবাসীদের আরো ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানানোর পাশাপাশি গণকবরের অবকাঠামো উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতার কথা জানান উপজেলা প্রশাসন।

Facebook Comments Box

নবীনগরে খারঘর গণহত্যা দিবস অনুষ্ঠিত।

আপডেট সময় : ০২:৩৪:৩০ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১১ অক্টোবর ২০২৩

 

হেলাল উদ্দিন নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর বড়াইল ইউনিয়নের পাগলা নদী তীরবর্তী খারঘর গ্রামে পাক বাহিনীর বর্বর হামলায় ৪৩ জন নারী-পুরুষ নিহত হয় । প্রতি বছর ১০ অক্টোবর স্থানীয় উপজেলা প্রশাসন, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার,ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ ও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা গণকবরে ফুল দিয়ে বিনম্র শ্রদ্ধা জ্ঞাপন শেষে খারঘর গণকবর সংরক্ষণ ও বাস্তবায়ন কমিটির আয়োজনে মঙ্গলবার আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। বড়াইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে ও খারঘর সংরক্ষণ ও বাস্তবায়ন কমিটির সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন আহমেদ জীবনের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন নবীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার তানবীর ফরহাদ শামীম। আরো উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার ভূমি নির্বাহী ম্যজিস্ট্রেট মাহমুদা জাহান,সজল কান্তি দাস, মনজুর হোসেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুল আলম, বীর- মুক্তিযোদ্ধা জাহাঙ্গীর আলম, মোস্তাফিজুর রহমান নান্নু মাস্টার, শরিফুল আলমসহ বীরমুক্তিযোদ্ধারা। নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস জানাতে স্থানীয় গ্রামবাসীদের আরো ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহবান জানানোর পাশাপাশি গণকবরের অবকাঠামো উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতার কথা জানান উপজেলা প্রশাসন।

Facebook Comments Box