ঢাকা ০১:৩৩ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নবীনগরে নাটঘরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থা সৌদি প্রবাসীর গৃহবধুর লাশ উদ্ধার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০২:২৪:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৪ ২০০ বার পড়া হয়েছে

 

হেলাল উদ্দিন নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া প্রতিনিধি:-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলা নাটঘর গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী দুই সন্তানের জননি বাছির মিয়ার স্ত্রী লাবনী বেগমের ২৬ রশিতে ঝুলানো অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।লাবনী বেগমের মা বাবার দাবি তার মেয়ে লাভনীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৩ বছর আগে উপজেলার বিদ্যাকুট গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার আব্দুল লতিফের মেয়ে লাভনীর সঙ্গে একই উপজেলার নাটঘর গ্রামের দুলো মিয়ার ছেলে সৌদি আরব প্রবাসী বাছিরের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।

তাঁদের সংসারে জমজ মিম ও রিয়ান নামের দুই বছরের দুই সন্তান রয়েছে।আজ সোমবার সকালে গ্রামে নিজ ঘরের বিতরে তীরের সঙ্গে গলায় রশি দিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকেই শ্বাশুড়ি পালাতক রয়েছে। মেয়ের মা বলেন আমরা খবর শুনে বিদ্যাকুট থেকে ছুটে আসি এসে দেখি আমার মেয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় পা খাটের মধ্যে লেগে ঝুলে আছে। আমরা এসে রশি কেটে লাশ নিচে নামাই।

আমি আসার পর আমার মেয়ের শ্বাশুড়ি পালিয়ে গেছে তারা আমার মেয়েকে মেরে তীরের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছে।আমি তাদের সুস্থ বিচার চাই সকলের ফাঁসি চাই।নটঘর ইউনিয়নের এই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হুমায়ুন মেম্বার বলেন,আমি শুনতে পারি আমার ওয়ার্ড একজন গৃহবধু আত্মহত্যা করছে আমি এসে দেখি মৃত্যুদহ তারা রশি কেটে নিচে নামিয়ে রাখছে তারপর আমি পুলিশকে খবর দেয় ঘটনাস্থলে শিবপুর পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ তদন্ত করতেছে।

Facebook Comments Box

নবীনগরে নাটঘরে গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থা সৌদি প্রবাসীর গৃহবধুর লাশ উদ্ধার

আপডেট সময় : ০২:২৪:১৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ৮ জানুয়ারী ২০২৪

 

হেলাল উদ্দিন নবীনগর ব্রাহ্মণবাড়ীয়া প্রতিনিধি:-

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলা নাটঘর গ্রামের সৌদি আরব প্রবাসী দুই সন্তানের জননি বাছির মিয়ার স্ত্রী লাবনী বেগমের ২৬ রশিতে ঝুলানো অবস্থায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।লাবনী বেগমের মা বাবার দাবি তার মেয়ে লাভনীকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করেছে তার শ্বশুর বাড়ির লোকজন।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, প্রায় ৩ বছর আগে উপজেলার বিদ্যাকুট গ্রামের দক্ষিণ পাড়ার আব্দুল লতিফের মেয়ে লাভনীর সঙ্গে একই উপজেলার নাটঘর গ্রামের দুলো মিয়ার ছেলে সৌদি আরব প্রবাসী বাছিরের সাথে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।

তাঁদের সংসারে জমজ মিম ও রিয়ান নামের দুই বছরের দুই সন্তান রয়েছে।আজ সোমবার সকালে গ্রামে নিজ ঘরের বিতরে তীরের সঙ্গে গলায় রশি দিয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করা হয়। ঘটনার পর থেকেই শ্বাশুড়ি পালাতক রয়েছে। মেয়ের মা বলেন আমরা খবর শুনে বিদ্যাকুট থেকে ছুটে আসি এসে দেখি আমার মেয়ে ফাঁস লাগানো অবস্থায় পা খাটের মধ্যে লেগে ঝুলে আছে। আমরা এসে রশি কেটে লাশ নিচে নামাই।

আমি আসার পর আমার মেয়ের শ্বাশুড়ি পালিয়ে গেছে তারা আমার মেয়েকে মেরে তীরের সাথে ঝুলিয়ে রেখেছে।আমি তাদের সুস্থ বিচার চাই সকলের ফাঁসি চাই।নটঘর ইউনিয়নের এই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য হুমায়ুন মেম্বার বলেন,আমি শুনতে পারি আমার ওয়ার্ড একজন গৃহবধু আত্মহত্যা করছে আমি এসে দেখি মৃত্যুদহ তারা রশি কেটে নিচে নামিয়ে রাখছে তারপর আমি পুলিশকে খবর দেয় ঘটনাস্থলে শিবপুর পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ তদন্ত করতেছে।

Facebook Comments Box