ঢাকা ০২:১০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুমিল্লায় স্কুল থেকে ফেরার পথে ৯ বছরের শিশুকে ‘ধর্ষণের’ পর হত্যা।

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০১:০৬:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৪ ১৮ বার পড়া হয়েছে

আফছানা আক্তার,
কুমিল্লা, প্রতিনিধি।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলায় বিদ্যালয় থেকে ফেরার পথে ৯ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার উপজেলার গলিয়ারা উত্তর ইউনিয়নের একটি গ্রামের ধান ক্ষেত থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানান কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি আলমগীর ভূঁইয়া।

শিশুটি স্থানীয় সোনালী শিশু বিদ্যানিকেতন কিন্ডারগার্টেনের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সকাল ১০টায় স্কুল ছুটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হয় শিশুটি। বাড়ি ফিরতে দেরি হওয়ায় তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে থানায় জিডি করেন শিশুটির মা।

বিকালে ধান ক্ষেতে মৃতদেহ পড়ে থাকার খবর পেয়ে স্বজনরা গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন। সন্ধ্যার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

শিশুটির মা সাংবাদিকদের বলেন, “আমাদের সঙ্গে কারো শত্রুতা নেই। কেনো অবুঝ শিশুটিকে হত্যা করতে হল। আমার সন্তান হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই। আমার মেয়েটাকে নির্যাতন করে খুন করা হয়েছে।”

রাতে ওসি আলমগীর বলেন, “প্রাথমিক তদন্তে বোঝা যাচ্ছে শিশুটিকে নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে। শিশুটির মা অভিযোগ করতে থানায় এসেছেন। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। দ্রুত অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে।”

Facebook Comments Box

কুমিল্লায় স্কুল থেকে ফেরার পথে ৯ বছরের শিশুকে ‘ধর্ষণের’ পর হত্যা।

আপডেট সময় : ০১:০৬:৩৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৩০ এপ্রিল ২০২৪

আফছানা আক্তার,
কুমিল্লা, প্রতিনিধি।

কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলায় বিদ্যালয় থেকে ফেরার পথে ৯ বছরের এক শিশুকে ধর্ষণের পর হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

সোমবার উপজেলার গলিয়ারা উত্তর ইউনিয়নের একটি গ্রামের ধান ক্ষেত থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানান কুমিল্লা সদর দক্ষিণ মডেল থানার ওসি আলমগীর ভূঁইয়া।

শিশুটি স্থানীয় সোনালী শিশু বিদ্যানিকেতন কিন্ডারগার্টেনের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, সকাল ১০টায় স্কুল ছুটি শেষে বাড়ি ফেরার পথে নিখোঁজ হয় শিশুটি। বাড়ি ফিরতে দেরি হওয়ায় তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করে না পেয়ে থানায় জিডি করেন শিশুটির মা।

বিকালে ধান ক্ষেতে মৃতদেহ পড়ে থাকার খবর পেয়ে স্বজনরা গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন। সন্ধ্যার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায় পুলিশ।

শিশুটির মা সাংবাদিকদের বলেন, “আমাদের সঙ্গে কারো শত্রুতা নেই। কেনো অবুঝ শিশুটিকে হত্যা করতে হল। আমার সন্তান হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই। আমার মেয়েটাকে নির্যাতন করে খুন করা হয়েছে।”

রাতে ওসি আলমগীর বলেন, “প্রাথমিক তদন্তে বোঝা যাচ্ছে শিশুটিকে নির্যাতনের পর হত্যা করা হয়েছে। শিশুটির মা অভিযোগ করতে থানায় এসেছেন। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। দ্রুত অপরাধীকে আইনের আওতায় আনা হবে।”

Facebook Comments Box